রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০২:৫৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
Logo ৩০ কোটি টাকার ঋণ দিচ্ছে বিশ্ব ব্যাংক মাধ্যামক শিক্ষার উন্নয়নে Logo নিউজিল্যান্ড চাপে পড়েও করল লড়াকু সংগ্রহ Logo ডিএনসি চট্টগ্রাম মেট্রো (উত্তর) কর্তৃক ৮৫৭৫ পিস ইয়াবা উদ্ধার Logo বাংলাদেশ থেকে নেওয়া ঋণ পুরো শোধ করেছে শ্রীলঙ্কা, দিয়েছে সুদও Logo বিপদের সঙ্কা, শিক্ষাবোর্ড থেকে ফাঁস হচ্ছে ব্যক্তিগত তথ্য Logo এবার ডিএনসি দিনাজপুর ও ব্রাহ্মনবাড়িয়া কর্তৃক ৮৮ কেজি গাঁজা উদ্ধার Logo এবার লবণের ট্রাকে ৯৬ কেজি গাঁজা Logo মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর বিভাগীয় গোয়েন্দা কার্যালয় বরিশাল কর্তৃক বিপুল পরিমান ইয়াবা উদ্ধার Logo ‘নির্বাচনের সময় পক্ষপাতমূলক আচরণ করলেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে’ Logo মহানগরে বিক্ষোভের ঘোষণা দিল জামায়াত

চা বিক্রেতার ছদ্মবেশে ইয়াবার চালান: ডিএনসির সফল অভিযানে কোটি টাকার মাদক উদ্ধার

Reporter Name / ১০ Time View
Update : শুক্রবার, ১৪ জুলাই, ২০২৩, ৪:০১ অপরাহ্ন
চা বিক্রেতার ছদ্মবেশে ইয়াবার চালান: ডিএনসির সফল অভিযানে কোটি টাকার মাদক উদ্ধার
চা বিক্রেতার ছদ্মবেশে ইয়াবার চালান: ডিএনসির সফল অভিযানে কোটি টাকার মাদক উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক: চা বিক্রেতার ছদ্মবেশে ইয়াবার চালান: ডিএনসির সফল অভিযানে কোটি টাকার মাদক উদ্ধার

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর, ঢাকা মেট্রো কার্যালয় (উত্তর) এর উপপরিচালক মোঃ রাশেদুজ্জামান এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে, সহকারী পরিচালক মোঃ মেহেদী হাসান এর নেতৃত্বে গুলশান, রমনা, উত্তরা, ধানমন্ডি ও তেজগাঁও সার্কেলের সমন্বয়ে গঠিত একটি রেইডিং টিম ১২ই জুলাই ২০২৩ তারিখ রাত হতে ১৩ই জুলাই ২০২৩ পর্যন্ত ঢাকা মহানগরীর বিভিন্ন এলাকায় পৃথক ৩টি অভিযান পরিচালনা করে প্রায় ১ কোটি ২৫ লাখ টাকা মূল্যের ৪১০০০(একচল্লিশ হাজার) পিস ইয়াবাসহ ০৬(ছয়) জন আসামীকে গ্রেফতার করে। আজ ১৪ই জুলাই ২০২৩ মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর, ঢাকা মেট্রো (উত্তর) এর এক সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানা যায়। উক্ত সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের ঢাকা বিভাগের অতিরিক্ত পরিচালক ও বিভাগীয় প্রধান মোঃ মজিবুর রহমান পাটওয়ারী, ঢাকা মেট্রোঃ কার্যালয় (উত্তর) এর উপপরিচালক মোঃ রাশেদুজ্জামান ও সহকারী পরিচালক মো: মেহেদী হাসানসহ বিভিন্ন সার্কেল এর পরিদর্শক উপপরিদর্শকবৃন্দ।

উক্ত সংবাদ সম্মেলনে উপপরিচালক মোঃ রাশেদুজ্জামান জানান,দারুস সালাম থানাধীন গাবতলী এলাকায় একটি সক্রিয় চক্রের বিপুল পরিমাণ ইয়াবার একটি চালানের লেনদেন হবে বলে তথ্য আসে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কাছে । উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে, ১৩ই জুলাই ২০২৩ সকাল ১১ টার দিকে উক্ত স্থানে ডিএনসির ঢাকা মেট্রো কার্যালয় (উত্তর) এর চৌকশ কর্মকর্তাগণ চা বিক্রেতার ছদ্মবেশে সেখানে অবস্থান নেয়। পরবর্তীতে রাঙ্গামাটি হয়ে উত্তরবঙ্গের মাদক চোরাকারবারীর অন্যতম সদস্য সাধন তনচংগ্যা (২৫) কে মহিলাদের ব্যবহৃত পেটিকোটের ভিতরের পকেটে ১১০০০ (এগারো হাজার) পিস ইয়াবাসহ হাতেনাতে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের পর আসামী জানায়, টেকনাফ হতে ইয়াবা সংগ্রহ করে প্রথমে রাঙ্গামাটি নিয়ে যায়, সেখান থেকে একটি পরিবহনযোগে গাবতলী এলাকায় অবস্থানরত উত্তরবঙ্গের ঠাকুরগাঁও অঞ্চলের মাদক ব্যবসায়ীর কাছে সরবরাহ করে।

এছাড়াও আমাদের কাছে আরো তথ্য আসে টেকনাফের একটি মাদকচক্র প্রথমে চাঁদপুর জেলায় অবস্থান করে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর নজরদারী ও চোখ ফাঁকি দিয়ে সেখান থেকে নৌপথে লঞ্চযোগে ঢাকায় মাদক চোরাচালান করছে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারি ১৩ই জুলাই ২০২৩ একটি চক্রের ২ জন মহিলা সদস্য চাঁদপুর হতে লঞ্চযোগে মাদকের একটি চালান নিয়ে সদরঘাট এলাকায় অবস্থান করবে। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে, অভিযান পরিচালনা করে ফাতেমা(৩৫) ও মোছাঃ মমিনা বেগম (২০) কে ৪০০০ (চার হাজার)পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামীরা জানায় তাদের দুজনের বাড়ি টেকনাফে। আইন-শৃঙ্খলা নজরদারি ফাঁকি দিয়ে টেকনাফ হতে প্রথমে ইয়াবার চালান চাঁদপুর অবস্থান করে এবং পরবর্তীতে লঞ্চযোগে ইয়াবার চালান ঢাকায় নিয়ে আসে। এক্ষেত্রে তারা বাড়তি সর্তকর্তা হিসেবে লাগেজের ভিতরে বিশেষ কৌশলে চেম্বার করে লুকিয়ে ইয়াবা পরিবহন করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, তারা একই পদ্ধতি অবলম্বন করে একাধিক ইয়াবার চালান ঢাকায় নিয়ে এসেছে।

সংবাদ সম্মেলনে সহকারী পরিচালক মেহেদী হাসান বলেন, এছাড়াও আমাদের কাছে তথ্য আসে রংপুর কেন্দ্রীক কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী ও একাধিক মাদক মামলার আসামী মোঃ ইয়াকুব আলী(৪০) মিরপুরের কালশি এলাকায় করে দীর্ঘদিন ঢাকার মিরপুর ও উত্তরবঙ্গের রংপুর অঞ্চলে ইয়াবা সরবরাহ করে আসছে। তার মাদক চোরাচালানের কৌশল একটু ভিন্ন ধরণের। টেকনাফ, কক্সবাজার ও চট্টগ্রাম থেকে সে সরাসরি নিজেই মাদকদ্রব্য সংগ্রহ ও পরিবহন করে ঢাকায় নিয়ে আসে। প্রথমে টেকনাফ, কক্সবাজার ও চট্টগ্রাম অবস্থান করে স্থানীয় মাদক ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে ইয়াবা সংগ্রহ করে হোটেলে অবস্থান করে মজুদ করে। পরবর্তীতে ইয়াবার বড় চালান বিভিন্ন কৌশলে সে ঢাকায় নিয়ে আসে। এ জন্য তার রয়েছে প্রাইভেট কার ও মোটরসাইকেল। তার সহযোগিরা প্রাইভেটকার যোগে প্রথমে ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়কে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতা পর্যবেক্ষন করে তাদের কাছ থেকে সবুজ সংকেত পাওয়ার পর মোটরসাইকেলযোগে ইয়াবা নিয়ে ঢাকায় প্রবেশ করে। মোটরসাইকেলে আরোহন অবস্থায় সে ট্রাভেলারের বেশভূষা ধারণ করে, যাতে সহজে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর চোখ ফাকি দেয়া যায়। এই পদ্ধতিতে ইতোপূর্বে সে বেশ কয়েকটি ইয়াবার চালান নিয়ে আসে বলে আমাদের কাছে তথ্য ছিল। আমরা দীর্ঘদিন তার গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করতে থাকি এবং সর্বশেষ জানতে পারি কক্সবাজার হতে বিপুল পরিমাণ ইয়াবার একটি চালান নিয়ে ঢাকার মিরপুর, কালশী এলাকায় আসবে। উক্ত তথ্য মোতাবেক ঢাকা মেট্রোকার্যালয় (উত্তর) এর রমনা ও গুলশান সার্কেল এর সমন্বয়ে গঠিত একটি রেইডিং টিম কালশী এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ২৫০০০ (পচিঁশ হাজার) পিস ইয়াবা ও মোটরসাইকেলসহ কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী মোঃ ইয়াকুব আলী(৪০)কে গ্রেফতার করতে সক্ষম হই।
প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামী জানায়, সে কক্সবাজারে অবস্থান করে স্থানীয় মাদক ব্যবসায়ী থেকে ইয়াবা সংগ্রহ করে মোটরসাইকেল যোগে ঢাকায় নিয়ে আসে এবং এ ইয়াবার চালান পরবর্তীতে সুযোগ বুঝে রংপুরে নিয়ে যেত।

অপরদিকে একই দিন সকালে তেজগাঁও সার্কেলের অপর একটি টিম ফার্মগেট এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে নাঈম কে ১০০০ পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতার করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে, ঢাকা বিভাগের অতিরিক্ত পরিচালক মোঃ মজিবুর রহমান পাটওয়ারী বলেন, মাদক মুক্ত বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত মাদকের বিরুদ্ধে ‘ শূন্য সহিষ্ণুতা নীতি বাস্তবায়ন এবং স্মার্ট বাংলাদেশ গঠনে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর (ডিএনসি) সচেষ্ট থাকবে এবং  অভিযান অব্যাহত থাকবে।

আসামীদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন-২০১৮ (সংশোধিত ২০২০) অনুযায়ী সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা দায়ের করা হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Design & Developed by : JEWEL