শ্রীলঙ্কায় হঠাৎ কারফিউ শিথিল!

অর্থনৈতিক সংকট আর রাজনৈতিক অস্থিরতায় বিপর্যস্ত শ্রীলঙ্কায় সাত ঘণ্টার জন্য কারফিউ শিথিল করা হয়েছে।

ডেইলি মিররের খবরে বলা হয়, বৃহস্পতিবার (১২ মে) স্থানীয় সময় সকাল ৭টায় কারফিউ তুলে নেওয়া হয়। কারফিউ সাত ঘণ্টা বন্ধ থাকবে। পরে তা দুপুর ২টায় আবারও দেওয়া হবে।

এদিকে শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্টের মিডিয়া ডিভিশনের বরাত দিয়ে জানানো হয়েছে, বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় দুপুর ২টায় আবার কারফিউ দেওয়া হবে। পরদিন শুক্রবার ভোর ৬টা পর্যন্ত চলবে।

টানা বিক্ষোভের মুখে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্বে থাকা মাহিন্দা রাজাপক্ষে পদত্যাগ করায় শ্রীলঙ্কার সংকট আরও গভীর হয়েছে। স্বয়ংক্রিয়ভাবে ভেঙে গেছে দেশটির মন্ত্রিসভা। মন্ত্রিপরিষদ ছাড়াই ক্ষমতা ধরে রেখেছেন প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপক্ষে।

দেশটির কেন্দ্রীয় ব্যাংক জানিয়ে দিয়েছে, আগামী দুদিনের মধ্যে মন্ত্রিসভা পুনর্গঠন করতে হবে। তা না হলে দেশটির অর্থনীতি সম্পূর্ণভাবে ধসে পড়বে। এরপর কোনো পদক্ষেপই শ্রীলঙ্কাকে রক্ষা করতে সক্ষম হবে না। কারণ হিসেবে বলা হচ্ছে, চলমান সহিংসতায় ব্যাংকের পুনরুদ্ধার কার্যক্রম ব্যাহত হয়েছে।

চলমান উত্তেজনার মধ্যে চলতি সপ্তাহেই শ্রীলঙ্কায় নতুন প্রধানমন্ত্রী নিয়োগ ও মন্ত্রিসভা গঠনের ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপক্ষে। বুধবার (১১ মে) জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে গোতাবায়া বলেন, নতুন মন্ত্রিসভা গঠন নিয়ে সব রাজনৈতিক দলের সঙ্গে বৈঠক করছেন তিনি। তরুণ প্রজন্মের নেতাদের মন্ত্রিসভায় প্রাধান্য দেওয়া হবে, যেখানে রাজাপক্ষে পরিবারের কেউ থাকবেন না বলেও জানান তিনি।

এর মধ্যেই সহিংসতা নিয়ন্ত্রণে সেনা মোতায়েন করায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। যত দ্রুত সম্ভব জনগণের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য সরকার ও রাজনীতিবিদদের আহ্বান জানিয়েছে দেশটি। জাতিসংঘও সমস্যা সমাধানে সরকার ও জনগণকে আলোচনায় বসার আহ্বান জানিয়েছে।