আসন্ন ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে রাজধানীসহ সারা দেশে মাদক চোরা চালান ও মাদক ব্যবসায়ীদের তৎপরতা রোধকল্পে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর (ডিএনসি)’র বিশেষ অভিযানে আবারও কক্সবাজার, সুনামগঞ্জ, বগুড়া, চাঁদপুর ও ফেনীতে বিপুল পরিমাণ মাদক ইয়াবা,গাঁজা ও ফিন্সিডিল উদ্ধার।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর, জেলা কার্যালয় কক্সবাজার, বিশেষ অভিযানের প্রথম দিনে পরিদর্শক জীবন বড়ুয়া এর নেতৃত্বে কক্সবাজার সদর থানাধীন সপ্ন বিলাস হোটেলের সামনে হতে শহীদুল কায়ছার (২২) এবং আবদুল্লা (২২) কে ১০,০০০ (দশ হাজার) পিস ইয়ারসহ হাতেনাতে গ্রেফতার করে, এবং বিশেষ অভিযানের ২য় দিনে রামু থানাধীন এলাকায় আমিন উল্লা (১৯) কে ২,০০০ (দুই হাজার) পিস ইয়াবাসহ হাতেনাতে গ্রেফতার করে আসামীদের বিরুদ্ধে পরিদর্শক জীবন বড়ুয়া বাদী হয়ে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন-২০১৮ অনুযায়ী পৃথক পৃথক মামলা দায়ে করেন। বিশেষ অভিযানের ৩য় দিনে উপরিদর্শক মোঃ কামরুজ্জম এর নেতৃত্বে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে একটি টিম ঊখিযা থানাধীন মরিচ্ছা বাজার এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে আবদুল আলম (২২) ও হেলাল মিয়া (২২) কে ৮০০০ (আট হাজার) পিস ইয়াবাসহ হাতেনাতে গ্রেফতার করে। আসামীদের বিরুদ্ধে উপরিদর্শক মোঃ কামরুজ্জম বাদী হয়ে ঊখিযা থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন-২০১৮ একটি নিয়মিত মামলা দায়ের করেন বলে জানা যায়।

অন্যদিকে,(বৃহস্পতিবার) ২১ই এপ্রিল, ২০২২ মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর, জেলা কার্যালয় সুনামগঞ্জ এর সহকারী পরিচালক সাজেদুল হাসান এর দিক নির্দেশনায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মাহমুদুর রহমান মামুন এর নেতৃত্বে পুলিশ ফোর্স সহ একটি টাস্কফোর্স টিম গঠন করে দিরাই থানাধীন দিরাই পৌরসভার আনোয়ারপুর এলাকায় গাউছিয়া ভান্ডারী ফার্নিচার দোকানের সামনে পাকা রাস্তার উপর কুখ্যাত ইয়াবা সম্রাট মোঃ সোহেল মিয়া (৩৫), পিতা- মোঃ ফয়জুর রহমান, সাং- পূর্ব চন্ডিপুর, দিরাই পৌরসভা, দিরাই সুনামগঞ্জ কে ২০০ (দুইশত) পিস ইয়াবাসহ  গ্রেফতার করে। পরবর্তীতে তার নিজ বসতঘর তল্লাশী করে আরো ৮০০ (আটশত) পিস ইয়াবা মোট ১০০০ (এক হাজার) পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। আসামীর বিরুদ্ধে দিরাই থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন-২০১৮ অনুযায়ী একটি নিয়মিত মামলা দায়ের করে বলে জানা যায়।

এদিকে, (শুক্রবার) ২২ই এপ্রিল, ২০২২ মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর, জেলা কার্যালয়, বগুড়া এর উপ-পরিচালক মোঃ মেহেদী হাসান এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে ও  পরিদর্শক মোহাম্মদ ইব্রাহিম খান এর নেতৃত্বে এবং বিভাগীয় স্টাফদের সমন্নয়ে গঠিত একটি টিম বগুড়া জেলার শেরপুর থানাধীনে এলাকায় রাতভর অভিযান পরিচালনাকালে শাহীন বিশ্বাস (৩৩) কে ৪০০ (চারশত) পিস  মিথাইল অ্যামফিটামিনযুক্ত ইয়াবা ট্যাবলেট ও ইমরান (৩৫) কে ৭০ (সত্তর) বোতল ফিন্সিডিলসহ এবং ০১ জনকে ০৩ (তিন) কেজি গাঁজাসহ গ্রেফতার করা হয়। আসামীদের বিরুদ্ধে পরিদর্শক ও উপ-পরিদর্শক বাদী হয়ে শেরপুর থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন-২০১৮ অনুযায়ী পৃর্থক তিনটি নিয়মিত মামলা দায়ের করে বলে জানা যায়।

অন্যদিকে, (শুক্রবার) ২২ই এপ্রিল, ২০২২ মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর, জেলা কার্যালয় চাঁদপুর, এর  সহকারী পরিচালক মোঃ এমদাদুল ইসলাম মিঠুন এর সার্বিক তত্বাবধানে পরিদশর্ক বাপন সেন এর নেতৃত্বে গঠিত রেডিং টীম গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চাঁদপুর সদর থানাধীন ফয়সাল শপিং কমপ্লেক্স এর সামনে ফুটপাতে মাদকবিরোধী অভিযান পরিচালনা করে আসামী ১নং মোঃ আবু জাহেদ (৩৫), পিতা- মৃত আবু তাহের, মাতা- রহিমা বেগস এবং ২নং আসামী রোকসানা বেগম (৩৭), স্বামী- মোঃ আবু জাহেদ, পিতা- ফিরোজ আলম, মাতা- ফিরোজা বেগম উভয়কে ৫ (পাঁচ) কেজি গাঁজাসহ হাতেনাতে গ্রেফতার করা হয়।

 অপর অভিযানে উপ-পরিদর্শক মোহাম্মদ পিয়ার হোসেন এর নেতৃত্বে গঠিত রেডিং টীম গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চাঁদপুর সদর মডেল থানাধীন বাসস্ট্যান্ড ফয়সাল শপিং মার্কেটের বেষ্ট এন্ড টেস্ট নামীয় দোকানের পূর্বপার্শ্বে রাস্তার উপর মাদকবিরোধী অভিযান পরিচালনা করে আসামী ইমন হোসেন (২৩), পিতা- জামাল হোসেন, মাতা- নাসিমা বেগমকে ০২(দুই) কেজি গাঁজাসহ হাতেনাতে গ্রেফতার করা হয়।

পৃথক অভিযানে পরিদর্শক বাপন সেন এর নেতৃত্বে গঠিত রেডিং টীম গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চাঁদপুর সদর মডেল থানাধীন বাসস্ট্যান্ডস্থ ফয়সাল শপিং কমপ্লেক্স সংলগ্ন নজরুল ইসলাম ভুট্টু এর চায়ের দোকানের পূর্ব পাশ্বে মাদকবিরোধী অভিযান পরিচালনা করে আসামী মোঃ গোলাম রাব্বি (২২), পিতা- মোঃ রবিউল হাওলাদার রবি, মাতা- রানু বেগমকে ৩(তিন) কেজি গাঁজাসহ হাতেনাতে গ্রেফতার করা হয়।  আসামীদের বিরুদ্ধে পরিদর্শক বাপন সেন, উপ-পরিদর্শক মোহাম্মাদ মজিবর রহমান ও উপ-পরিদর্শক মোহাম্মদ পিয়ার হোসেন বাদী হয়ে চাঁদপুর সদর মডেল থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন-২০১৮ অনুযায়ী পৃথক পৃথক নিয়মিত মামলা দায়ের করে বলে জানা যায়।

এছাড়াও, (শুক্রবার) ২২ই এপ্রিল, ২০২২ মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর, জেলা কার্যালয়, ফেনীর বিভাগীয় পরিদর্শক মোঃ মোজাম্মেল হক এর নেতৃত্ব ফুলগাজী থানাধীন দক্ষিণ আনন্দপুর মিজান হুজুরের বাড়ী হতে মহিন উদ্দিন (২৬) নামীয় ০১ (এক) ব্যাক্তি কে  ফেনসিডিল ও ইয়াবা ট্যাবলেট  সংরক্ষণের অপরাধে গ্রেফতার করে ফুলগাজী থানায় একটি মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন-২০১৮ অনুযায়ী একটি নিয়মিত মামলা দায়ের করে বলে জানা যায়।